Total Pageviews

Its Awesome!

Monday, January 30, 2017

 1:15 PM         No comments
বরিশালের রূপাতলীর শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের একটি মেয়েকে পছন্দ করা নিয়ে দ্বন্দ্বের কারণে ওই স্কুলের ছাত্র সাইদুর রহমান হৃদয়কে (১৪) কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় ছয় জনকে আটক করেছে পুলিশ। 
রোববার বিকেলে বরিশাল মহানগর পুলিশ কমিশনার কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান কমিশনার এস এম রুহুল আমিন।

আটককৃতরা হলেন- রাজু হোসেন মাঝি, সাঈদ আবেদীন আব্দুল্লাহ্ রাহাত, ইমন সিকদার, মুরাদ হোসেন, নুরুন্নবী নাহিদ, সৈয়দ ইয়াসিন শান্ত।
কমিশনার বলেন, ‘তারা ছয়জনই এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত একটি ছুরিও উদ্ধার করা হয়েছে। আটককৃতদের মধ্যে মুরাদ হোসেন মূল হোতা বলে জানা গেছে’। 
সংবাদ সম্মেলনে এস এম রুহুল আমিন বলেন, ‘গত বছরের নভেম্বরে স্থানীয় কাউনিয়া স্কুলের এক দপ্তরিকে বিদ্রূপ করা নিয়ে শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র সাইদুর রহমান হৃদয় ও টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের একই শ্রেণির ছাত্র সাঈদ আবেদীন আব্দুল্লাহর বন্ধুদের মারামারি হয়’।
এ ছাড়া হৃদয়ের বন্ধু আহাদ একই স্কুলের একটি মেয়েকে পছন্দ করত, যাকে সাঈদও কয়েকদিন আগে প্রেমের প্রস্তাব করে। এসব বিষয় নিয়ে উভয়ের মধ্যে বিরোধ চলছিল। 
আটককৃতদের মধ্যে সাঈদ ও রাজুকে আদালতে পাঠানো হয়েছে, বাকিদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান কমিশনার এস এম রুহুল আমিন।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার আবুল কালাম আজাদ,উপপুলিশ কমিশনার (সদর) হাবিবুর রহমান,উপপুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) আব্দুর রউফ খান,উপপুলিশ কমিশনার (ডিবি) উত্তম কুমার পাল।
প্রসঙ্গত, শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে রূপাতলীর শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সাইদুর রহমান হৃদয় (১৪) নামে দশম শ্রেণির এক ছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয় তার সহপাঠী রাফি (১৪)।
এ ঘটনায় ওই দিন রাতেই নিহত হৃদয়ের পিতা শাহীন গাজী বাদী হয়ে একজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৮-১০ জনকে আসামি করে কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি মামলা করেন।
প্রিয় সংবাদ/এএসএস/এনএইচএস    
Reactions:

0 comments:

NetworkedBlogs

Popular Posts

Recent Posts

Text Widget

Blog Archive