Total Pageviews

Its Awesome!

Monday, January 30, 2017

 1:13 PM         No comments
যৌতুকের অভিযোগ তুলে কেউ মিথ্যা মামলা করলে এক বছরের কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানার শাস্তির বিধান রেখে ‘যৌতুক নিরোধ আইন-২০১৭’-এর খসড়া চূড়ান্ত করেছে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়। কিন্তু যৌতুকের কারণে স্ত্রীকে গুরুতর জখম করলে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড অথবা অনধিক ১২ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড দেওয়ার বিধান রাখা হয়েছে। এ ছাড়া খসড়ায় যৌতুক চেয়ে আত্মহত্যার প্ররোচনা দিলে ১৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড দেওয়া হবে বলে উল্লেখ রয়েছে।

সোমবার দৈনিক সমকাল-এর একটি প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, এই আইনটির খসড়া অনুমোদনের জন্য সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে উঠার কথা রয়েছে। 
খসড়ায় বলা হয়েছে, এ আইনের অধীনে সংঘটিত অপরাধসমূহ আমলযোগ্য, জামিন অযোগ্য এবং প্রযোজ্য ক্ষেত্রে আপসযোগ্য বলে গণ্য হবে। যদি কোনো বিয়ের এক পক্ষের কোনো ব্যক্তি বা ব্যক্তিবর্গ অন্য পক্ষের কোনো ব্যক্তিকে যৌতুকের জন্য আত্মহত্যার প্ররোচনা করেন, মৃত্যু ঘটানোর চেষ্টা করেন বা অঙ্গহানি করেন, মারাত্মক জখম করেন বা সাধারণ জখমও করেন, তাহলে তারা আত্মহত্যার প্ররোচনার জন্য ১৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত হবেন। এ ছাড়া অতিরিক্ত অর্থদণ্ডেও দণ্ডিত হবেন। 
আইনের বিষয়ে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগম জানান, যৌতুকের যে আইনটি ছিল, এটা অনেক পুরোনো। বাস্তবতার আলোকে আইনের কিছু সংশোধনী প্রয়োজন। অপরাধ ভেদে দণ্ড বাড়িয়ে আইনটি সংশোধন করে খসড়া তৈরি করা হয়েছে। এতে নতুন কিছু ধারাও সংযোজন করা হয়েছে।
সূত্র: সমকাল
Reactions:

0 comments:

NetworkedBlogs

Popular Posts

Recent Posts

Text Widget

Blog Archive