Total Pageviews

Its Awesome!

Sunday, November 20, 2016

 8:48 PM         No comments
মাত্র ৩০৯০ টাকায় ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার ফোন! সেইসাথে কোয়াডকোর প্রসেসর! কিছুদিন আগেও এটা ছিলো অবিশ্বাস্য! কিন্তু দেশের বাজারে মোবাইল ফোনের ক্রমবর্ধমান চাহিদার ফলে স্বল্পমূল্যে অধিক ফিচার সংবলিত স্মার্টফোন আনার ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য প্রতিযোগিতা দেখা দিয়েছে। দেশীয় স্মার্টফোন বাজারজাতকরণ প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন সম্প্রতি বাজারে এনেছে প্রিমো ডি সিরিজের নতুন স্মার্টফোন Primo D8; এন্ট্রি লেভেলের এই ফোনের অন্যতম উল্লেখযোগ্য দিক হলো অ্যান্ড্রয়েড ৬.০ মার্শম্যালো, কোয়াডকোর প্রসেসর, ৫ মেগাপিক্সেল রেয়ার ক্যামেরা, ৪ ইঞ্চি ডিসপ্লে, OTA সুবিধা ও ১৩০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি।

Primo D8 Hands-on
প্রিয় পাঠক, চলুন তাহলে একনজরে Primo D8 এর উল্লেখযোগ্য ফিচারসমূহ দেখে নেওয়া যাক -
  • অ্যান্ড্রয়েড ৬.০ মার্শম্যালো
  • ৪ ইঞ্চি ডিসপ্লে
  • ১.৩ গিগাহার্জ গতির কোয়াডকোর প্রসেসর
  • ৫১২ মেগাবাইট র‍্যাম
  • মালি ৪০০ জিপিউ
  • ৫ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা
  • ভিজিএ ফ্রন্ট ক্যামেরা
  • ৪ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরী
  • ডুয়েল সিম
  • ১৩০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি
এবারে তাহলে বিস্তারিত রিভিউয়ের দিকে যাওয়া যাক-
আনবক্সিং:
Primo D8 স্মার্টফোনটির বক্সে যা যা রয়েছে –
  • হ্যান্ডসেট
  • চার্জার অ্যাডাপ্টার
  • ডাটা ক্যাবল
  • ইয়ারফোন
  • ইউজার ম্যানুয়াল
  • ওয়ারেন্টি কার্ড
অপারেটিং সিস্টেম:
Primo D8 ফোনটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে অ্যান্ড্রয়েড ৬.০ মার্শম্যালো ব্যবহার করা হয়েছে, তবে এতে OTA আপডেট থাকায় ভবিষ্যতে আরও আপডেট পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছে ওয়ালটন।
Primo D8 review OS
বিল্ড কোয়ালিটি ও ডিজাইন: 
প্রিমো D8 স্মার্টফোনটি বেশ আকর্ষণীয় ডিজাইনের। এই ফোনের উপরের অংশে রয়েছে ৩.৫ মিলিমিটার অডিও পোর্ট ও ইউএসবি ২.০ পোর্ট আর ফোনটির বামে রয়েছে ভলিউম কী ও ডানে পাওয়ার কী।
Primo D8 hands-on review
১২৮ মিলিমিটার উচ্চতার এই ফোনটি প্রস্থে ৬৬ মিলিমিটার আর এর পুরুত্ব ১১ মিলিমিটার। বেশ হালকা গড়নের এই ফোনের ওজন মাত্র ১২০ গ্রাম (ব্যাটারিসহ)। ফোনটির পেছনের দিকে উপরের অংশে আছে রিয়ার ক্যামেরার লেন্স ও ফ্ল্যাশলাইট আর নিচের দিকে স্পীকার। এছাড়া সম্মুখভাগে ফ্রন্ট ক্যামেরা, সেন্সর প্রভৃতি তো রয়েছেই।
Primo D8 review
Primo D8 review
ডিসপ্লে: 
এই ফোনে ৪ ইঞ্চির ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে, আর এর ডিসপ্লের রেজ্যুলেশন হলো ৪৮০x৮০০ পিক্সেলের।
Primo D8 Display
ইউজার ইন্টারফেস: 
এবার তাহলে অ্যান্ড্রয়েড মার্শম্যালো অপারেটিং সিস্টেমের এই ফোনের ইউজার ইন্টারফেস দেখে নেওয়া যাক-
Primo D8 User Interface
সিপিউ ও জিপিউ: 
সিপিউ হিসেবে এই ফোনে রয়েছে ১.৩ গিগাহার্টজ গতির কোয়াডকোর প্রসেসর। স্বল্পমূল্যের স্মার্টফোনসমূহে সাধারণত মিডিয়াটেক চিপসেট ব্যবহার করা হয়ে থাকে, ব্যতিক্রম ঘটেনি Walton Primo D8 এর ক্ষেত্রেও। এই ফোনে মিডিয়াটেকের MT6580 চিপসেট ব্যবহৃত হয়েছে। ওয়ালটন তাদের এই ফোনে মালি-৪০০ জিপিউ ব্যবহার করেছে। তবে মূল্য বিবেচনায় এন্ট্রি লেভেলের এই ফোনের গ্রাফিক্স কোয়ালিটি কিংবা গেমিং পারফরম্যান্স মন্দ নয়।
Primo D8 review Memory
মেমোরি ও র‍্যামঃ 
Primo D8 এ ৪ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরী দেওয়া হয়েছে, যার মধ্যে প্রায় ২.৩৪ গিগাবাইট ব্যবহারযোগ্য। তবে এতে ৬৪ গিগাবাইট পর্যন্ত এক্সটারনাল মাইক্রো-এসডি কার্ড ব্যবহার করে এর ধারণক্ষমতা বাড়িয়ে নেওয়া যাবে।
অন্যদিকে এই ফোনের ৫১২ মেগাবাইটের র‍্যামের মধ্যে প্রায় ৪৫৮ মেগাবাইট ব্যবহারযোগ্য। এতে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক অ্যাপস ইন্সটল করার পর ১০০ মেগাবাইটের বেশি র‍্যাম ফাঁকা ছিলো।
Primo D8 review Memory
ক্যামেরা: 
Primo D8 এর ৫ মেগাপিক্সেলের রেয়ার ক্যামেরায় রয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশ সুবিধা।
Primo D8 এর ক্যামেরা ইন্টারফেস-
 Primo D8 review Camera Interface
দেখুন দিনের আলোতে এই ফোনের ক্যামেরায় তোলা ছবিঃ
 Primo D8 review Camera Sample
এছাড়া সেলফি তুলতে রয়েছে ভিজিএ ফ্রন্ট ক্যামেরা।
মাল্টিমিডিয়া: 
Primo D8 এ রয়েছে ৩.৫ মিলিমিটারের অডিও জ্যাক। এর সাথে যে হেডফোনটি দেওয়া হয় তার সাউন্ড কোয়ালিটি মোটামুটি মানের।
Primo D8 audio review
আর এই ফোনে ৭২০ পি ফুল এইচডি ভিডিও কোন ধরণের ল্যাগ ছাড়াই চলেছে।
Primo D8 video review
গেমিং পারফরম্যান্স: 
স্বল্পবাজেটের এই ফোনটি সাধারণ গেমিংয়ের জন্য মন্দ নয়। কোয়াডকোর প্রসেসরসমৃদ্ধ এই ফোনে বিভিন্ন ধরণের গেম বেশ স্মুথলি খেলা যায়, তবে এর র‍্যাম মাত্র ৫১২ মেগাবাইট হওয়ায় এইচডি গেম খেলতে খানিকটা অসুবিধার সম্মুখীন হতে হয়। তবে স্বল্পর‍্যামবিশিষ্ট এই ফোনে ক্ল্যাশ রয়্যাল, ক্ল্যাশ অফ ক্ল্যানস, টেম্পল রান ওজেড প্রভৃতি জনপ্রিয় গেম কোন ধরণের ল্যাগিং ছাড়াই খেলা গেছে।

কানেক্টিভিটি: 
এই ফোনে ব্লুটুথ ৪.০, ওয়াইফাই, ওয়্যারলেস হটস্পট প্রভৃতি কানেক্টিভিটি সুবিধা রয়েছে। এছাড়া জিপিএস নেভিগেশন সুবিধাতো রয়েছেই।
সিম: 
ওয়ালটনের অধিকাংশ স্মার্টফোনের ন্যায় Primo D8 এ-ও রয়েছে ২টি সিম ব্যবহারের সুবিধা। আর হ্যাঁ, এর উভয় স্লটই মিনি সিম সাপোর্টেড
ব্যাটারি: 
৪ ইঞ্চি ডিসপ্লে সংবলিত Primo D8 এ ১৩০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে। এর ব্যাটারি ব্যাকআপ মোটামুটি, একবার ফুল চার্জ দিলে টানা ৪-৪.৫ ঘন্টা ইন্টারনেট ব্রাউজ করা যায়। এছাড়া একবার ফুল চার্জে টানা প্রায় ৫ ঘন্টা এইচডি ভিডিও উপভোগ করা যায়।
Primo D8 hands-on review AnTuTu Score
সেন্সর:
ওয়ালটনের নতুন এই ফোনে সেন্সর হিসেবে অ্যাক্সিলেরোমিটার (থ্রিডি) সেন্সর ব্যবহৃত হয়েছে।
বেঞ্চমার্ক:
কোন ডিভাইসের সক্ষমতা যাচাইয়ের জন্য সাধারণত বেঞ্চমার্ক স্কোর যাচাই করা হয়ে থাকে। Primo D8 এর বেঞ্চমার্ক স্কোর যাচাইয়ের জন্য বেঞ্চমার্ক যাচাইয়ের জনপ্রিয় অ্যাপ AnTuTu বেছে নেওয়া হয়েছিলো। AnTuTu তে এর স্কোর এসেছে ১৮৬১৮; এন্ট্রি লেভেলের ফোনে যা অনেকটাই অবিশ্বাস্য! বেঞ্চমার্ক যাচাইয়ের আরেক অ্যাপ Nenamark এ Primo D8 এর স্কোর এসেছে ৫৬.৮
Primo D8 hands-on review AnTuTu Score
মূল্য: 
ক্রেতাদের সাধ্যের কথা বিবেচনা করে প্রয়োজনীয় নানা ফিচারসংবলিত Primo D8 স্মার্টফোনটির মূল্য মাত্র ৩০৯০ টাকা নির্ধারণ করেছে ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ।
যেসব কারণে ভালো লেগেছে Primo D8:
  • অ্যান্ড্রয়েড ৬.০ মার্শম্যালো
  • ৫ মেগাপিক্সেল রেয়ার ক্যামেরা
  • স্বল্পমূল্য
Primo D8 এর সীমাবদ্ধতা: 
স্বল্পমূল্যের ও এন্ট্রি লেভেলের এই ফোনে উল্লেখযোগ্য কোন সীমাবদ্ধতা চোখে পড়েনি। তবে ব্যাটারি ১৫০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের হলে ভালো হতো।
শেষ কথা:
যারা ৩০০০ হাজার টাকা বাজেটে প্রয়োজনীয় নানা ফিচার সংবলিত স্মার্টফোন কিনতে চান, সেইসাথে চান আপডেটেড অপারেটিং সিস্টেমের স্বাদ পেতে, তাদের জন্য Walton Primo D8 থাকতে পারে পছন্দের শীর্ষতালিকায়।

Reactions:

0 comments:

NetworkedBlogs

Popular Posts

Recent Posts

Text Widget

Blog Archive