Total Pageviews

Its Awesome!

Monday, December 2, 2013

 8:21 PM         No comments

download‘আমার বাবা তো রাজনীতি করেন না। কোনো দিন কোনো অন্যায়ও করেননি। তা হলে আজ কেন তাঁকে অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যুর সঙ্গে লড়তে হচ্ছে? আন্দোলনের নামে যারা সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে, পেট্রল ঢেলে আগুন দিয়ে যারা মানুষ পোড়ায় এবং এই বর্বরতার সঙ্গে যারা জড়িত, তাদের কঠিন বিচার চাই।’
অগ্নিদগ্ধ মাওলানা আবদুস ছত্তারের (৭০) একমাত্র ছেলে মাওলানা আবদুল হাকিম (৪০) ক্ষোভের সঙ্গে এসব কথা বলেন।
গত শনিবার রাতে বাড়ি ফেরার পথে পটুয়াখালী-বরিশাল মহাসড়কের বদরপুর দরবার শরিফ এলাকায় অবরোধকারীরা ব্যাটারিচালিত একটি ইজিবাইকে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিলে এর যাত্রী মাওলানা আবদুস ছত্তারের শরীরের অধিকাংশই ঝলসে যায়। রাতেই তাঁকে পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি ঘটলে ওই রাতেই তাঁকে বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। তাঁর বাড়ি পটুয়াখালী সদর উপজেলার জৈনকাঠি ইউনিয়নের চর জৈনকাঠি গ্রামে।



বিশ্বের সবচেয়ে পাতলা স্মার্টফোন এখন বাংলাদেশে

গতকাল রোববার বিকেলে ওই বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, পুরো বাড়িতে নিস্তব্ধতা। মাওলানা আবদুল হাকিম জানান, তাঁর বাবা গুরুতরভাবে দগ্ধ হয়েছেন। বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উদ্দেশে পাঠিয়ে দিয়ে চিকিৎসার টাকা জোগাড় করতে তিনি বাড়ি এসেছেন। তিনি জানান, তাঁর বাবা গত শুক্রবার সকালে বাড়ি থেকে ছারছিনা দরবার শরিফের উদ্দেশে রওনা দেন। শনিবার জোহরের পর আখেরি মোনাজাত শেষে বাড়ির পথে রওনা দেন। ছরছিনা থেকে লেবুখালী এসে একটি ব্যাটারিচালিত ইজিবাইকে করে পটুয়াখালী আসছিলেন। রাত নয়টার দিকে বদরপুর দরবার শরিফ এলাকায় অবরোধকারীরা ইজিবাইক থামিয়ে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিয়ে সরে পড়েন। তিনি কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, ‘বাবা সারা জীবন শিক্ষকতা করেছেন। তাঁর কোনো সঞ্চয় নেই। দুই বছর আগে অবসরে গেছেন, তবে এখনো অবসর ভাতার টাকা তুলতে পারেননি। কীভাবে তাঁর চিকিৎসা চলবে, সেই চিন্তায় আমরা দিশেহারা।’
চর জৈনকাঠি গ্রামে মাওলানা আবদুস ছত্তারের প্রতিষ্ঠিত জৈনকাঠি আহমেদিয়া বালিকা দাখিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা শাহ্ আলম বলেন, ‘আন্দোলনের নামে আগুন দিয়ে যেভাবে মানুষ পোড়ানো হয়, তা বর্বরতাকেও হার মানায়। আমরা এর অবসান চাই।’
প্রতিবেশী ইব্রাহিম মুন্সি বলেন, ‘রাজনীতির প্রতিহিংসার শিকার হতে হলো আমাদের এলাকার একজন ভালো মানুষকে। এ ধরনের প্রতিহিংসার রাজনীতি আমরা চাই না।’
Reactions:

0 comments:

NetworkedBlogs

Popular Posts

Recent Posts

Text Widget

Blog Archive