Total Pageviews

Its Awesome!

Monday, December 23, 2013

 9:03 PM         No comments

আগামীকাল প্রধান বিরোধীদল বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া সংবাদ সম্মেলনে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল স্থগিত করে রাষ্ট্রপতিকে নির্বাচন আয়োজনের আহবান জানাতে পারেন। বিএনপিসহ ১৮দলের নানান পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে,সাংবিধানিক ধারাবাহিকতা রক্ষার নির্বাচন বলে সরকারি দলের বক্তব্যের পাল্টা বক্তব্যও দেবেন তিনি। একইসঙ্গে নির্বাচন কমিশন পরিবর্তনের দাবী তুলবেন। এসব দাবীতে তিনি স্বল্প সময়ের আলটিমেটাম দিতে পারেন।
দেশের চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতার মধ্যে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আগামীকালের সংবাদ সম্মেলনে নতুন কি বক্তব্য,দিকনির্দেশনা,কর্মসূচি বা ঘোষণা আসছে তা নিয়ে এরিমধ্যে নানান জল্পনা,কল্পনা ও আগ্রহ তৈরি হয়েছে। মঙ্গলবার গুলশান কার্যালয়ে সন্ধ্যা ৬টায় সংবাদ সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।
৮৩ ঘণ্টার অবরোধ কর্মসূচি শেষ হওয়ার প্রায় এক ঘণ্টা পরই এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। চলতি মাসে প্রায় একটানা অবরোধ কর্মসূচির মধ্যে প্রধান বিরোধী দলীয় নেত্রী মিডিয়ার সামনে কিংবা রাজপথে আসেননি। বিএনপির পক্ষ থেকে একে সংবাদ সম্মেলন বলা হলেও মূলত আগামীকাল খালেদা জিয়া জাতির সামনে লিখিত বক্তব্য দেবেন। বরাবরের মতো কালও সেখানে সাংবাদিকদের প্রশ্ন করার তেমন সুযোগ থাকবেনা। কয়েকটি টিভি চ্যানেল খালেদা জিয়ার ভাষণ সরাসরি সম্প্রচারের উদ্যোগ নিচ্ছে বলে জানা গেছে।



Manjari Pandis Ramp Walk Photos

বিএনপির চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের এক কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে,সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপার্সন নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন দেয়ার জন্য আগামী ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগ করার আহবান জানাবেন। এ সময়ের মধ্যে পদত্যাগ না করলে ১জানুয়ারি থেকে সর্বাত্মক অসহযোগ আন্দোলনের আলটিমেটাম দেওয়া হতে পারে।
এদিকে খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা বিশিষ্ট আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন মিডিয়াকে জানিয়েছেন,প্রধানমন্ত্রীসহ অন্যান্য মন্ত্রীরা আগামী ৫ জানুয়ারীর নির্বাচনকে সাংবিধানিক ধারাবাহিকতা রক্ষার নির্বাচন বলে অসত্য প্রচার চালাচ্ছেন। সরকারের অসত্য বক্তব্য এবং বিভ্রান্তিকর তথ্যের বিস্তারিত বেগম খালেদা জিয়া তাঁর বক্তব্যে তুলে ধরবেন।
খন্দকার মাহবুব এ প্রসঙ্গে জানান,বর্তমান সংবিধান মতে সংসদ বহাল রেখে মেয়াদ শেষ হওয়ার ৯০ দিন আগে নির্বাচন করার একটি বিধান আছে। প্রধানমন্ত্রী কোন কারণে মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার আগে সংসদ ভেঙ্গে দিলে পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠানেরও বিধান আছে। তাই ৫ জানুয়ারীর নির্বাচন সংবিধানের ধারাবাহিকতা রক্ষার নির্বাচন বলে যে প্রচারণা চালানো হচ্ছে তা সঠিক নয় বলে জানান তিনি। বিএনপির চেয়ারপারসনের এই উপদেষ্টা আরো জানান,আগামী ২৪ জানুয়ারী বর্তমান সংসদের ৫ বছর পূর্ণ হবে। এর আগে প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ করলে পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন হতে পারে।
কিন্তু নির্বাচনের তো তফসিল ঘোষনা হয়ে গেছে। আর এরিমধ্যে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ১৫৪ জন সাংসাদ নির্বাচিত হয়ে গেছেন। তাহলে দশম জাতীয় সংসদের পুনঃ তফসিল ঘোষণা কি সম্ভব? এ প্রসঙ্গে বিএনপি চেয়ারপাসনের উপদেষ্টা খন্দকার মাহবুব বলেন,যেহেতু আগামী ৫ জানুয়ারী নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে সেক্ষেত্রে আগামী ৫ জানুয়ারীর আগে প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ করলে রাষ্ট্রপতি পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচনের আয়োজন করতে পারেন। সংবিধানের ১২৩ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী এখনো যদি প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ করেন এবং অন্যকোন দল যদি সরকার গঠন করার মতো সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পায় তাহলে রাষ্ট্রপতি পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচনের আয়োজন করতে পারেন। জানা গেছে, আগামীকাল বিএনপির চেয়ারপারসন তাঁর ভাষনে এমন প্রস্তাব দিতে পারেন।
১৮ দলীয় জোটের প্রধান নেত্রী খালেদা জিয়া তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবী আবারো জানাবেন,সর্বাত্মক অসহযোগ আন্দোলনের ডাক দেবেন, দলের নেতা কর্মী ও সাধারন মানুষ রাজপথে সম্পৃক্ত হবেন এমন কর্মসূচি দেবেন,খালেদা জিয়া নিজেও রাজপথে নামবেন এমন কর্মসূচি দেবেন,আগামী ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে আন্তর্জাতিক সংস্থা ও বিদেশী পর্যবেক্ষক না আসার ঘোষণার বিষয়টিকে তুলে ধরবেন,একতরফা নির্বাচনে সেনাবাহিনী নামানোর সমালোচনা করবেন,সেনাবাহিনীকে বিতর্কিত করে তোলা হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলবেন,যৌথবাহিনী দিয়ে ১৮ দলের নেতা কর্মীদের নির্যাতন করার অভিযোগ তুলবেন,সেইসঙ্গে বর্তমান সরকারের মন্ত্রী ও সাংসদদের দুর্নীতি ও বিপুল পরিমান সম্পদের মালিক হওয়ার তথ্য তুলে ধরবেন বলে জানা গেছে।
এ ছাড়া খালেদা জিয়া চলমান আন্দোলন সম্পর্কে সরকারের বক্তব্যের পাল্টা বক্তব্য দেবেন। বিএনপি নীতিনির্ধারকদের একাধিকজন বলেছেন,খালেদা জিয়ার এই সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ১৮দল সরকারকে শেষ সুযোগ দেবে।
Reactions:

0 comments:

NetworkedBlogs

Popular Posts

Recent Posts

Text Widget

Blog Archive