Total Pageviews

Its Awesome!

Monday, December 23, 2013

 9:02 PM         No comments

এফএনএস (কেশব কুমার বড়–য়া; হাটহাজারী, চট্টগ্রাম) : ঢাকায় আগামীকাল মঙ্গলবার শাপলা চত্বরে হেফাজতে ইসলামের পূর্ব ঘোষিত মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। এ বিষয়ে এখনো পর্যন্ত অনড় অবস্থানে রয়েছেন সংগঠনটির নেতাকর্মীরা। এদিকে কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর ও ঢাকা মহানগর শাখার আহ্বায়ক নূর হুছাইন কাসেমী মহাসমাবেশ স্থগিত করেছেন বলে গণমাধ্যমে যে খবর প্রকাশিত হয়েছে  তা বিকৃতভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদি।

ঢাকা থেকে স্থগিতের আধা ঘণ্টার মাথায় চট্টগ্রামে বসে হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরী জানিয়েছেন, মতিঝিলে সমাবেশ করার সিদ্ধান্তে তারা অনড়। তিনি বলেন, আমরা সমাবেশ স্থগিত করিনি। আমাদের জ্যেষ্ঠ নেতৃবৃন্দকে ঢাকায় যেতে বাঁধা দেয়া হচ্ছে। আমরা বৈঠকে সিদ্ধান্ত নিয়েছি মহাসমাবেশ হবে। আমরা স্থগিতও করিনি, প্রত্যাহারও করিনি। কেন্দ্রীয় নেতারা ঢাকা যেতে না পারলেও ঢাকার নেতৃবৃন্দ মহাসমাবেশ করবেন।

সমাবেশের একদিন আগে আজ সোমবার সকালে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হওয়ার চেষ্টা করেন হেফাজতের আমীর আল্লামা শফী ও অন্যান্য কেন্দ্রীয় নেতারা। তবে পুলিশি বাঁধার মুখে তারা মাদ্রাসা ত্যাগ করতে পারেননি। সকাল থেকেই বিপুলসংখ্যক র‌্যাব-পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য হাটহাজারি মাদ্রাসার চারদিক ঘিরে রাখেন।

Manjari Pandis Ramp Walk Photos


এর পরে সেখানে এক বৈঠক শেষে যুগ্ম-মহসচিব মাওলানা মঈনুদ্দিন রুহি বলেন, সমাবেশ স্থগিতের কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে সরকার সম্পূর্ণ অগণতান্ত্রিকভাবে হেফাজতের সমাবেশে বাঁধা দিচ্ছে।

আজ দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে রাজধানীর বারিধারা জামিয়া মাদানিয়া মাদ্রাসায় এক সংবাদ সম্মেলনে নূর হুছাইন কাসেমী সমাবেশ স্থগিতের ঘোষণা দিয়ে বলেন, আমরা সমাবেশের সব প্রস্তুতি নিয়েছিলাম। অনুমতির জন্য গত ৩০ নভেম্বর আবেদনও করেছিলাম। কিন্তু সরকার বলছে, ‘তারা কোনোভাবেই অনুমতি দেবে না। সরকারের বাঁধার কারণে আপাতত কালকের (মঙ্গলবার) সমাবেশ হচ্ছে না।

কাসেমীর এই বক্তব্য বিভিন্ন গণমাধ্যমে বিকৃতভাবে উপস্থাপন করা হচ্ছে বলে দাবি করেন মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদি। তিনি বলেন, সমাবেশ স্থগিতের কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। বিভিন্ন সরকার সমর্থক মিডিয়া উদ্দেশ্যেমূলকভাবে মাওলানা কাসেমীর বক্তব্য বিকৃতভাবে উপস্থাপন করছে।

এছাড়াও তিনি অভিযোগ করেন, চট্টগ্রামের বিভিন্ন মাদ্রাসা র‌্যাব-পুলিশ অবরূদ্ধ করে রেখেছে। এতে ছাত্র-শিক্ষকদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার একেএম হাফিজ আক্তার বলেন, চট্টগ্রামে হেফাজতের কার্যক্রম সক্রিয়, এমন ২০০ মাদ্রাসা রয়েছে। সব মাদ্রাসায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে এই তথ্য সঠিক নয়। তবে নিরাপত্তার কারণে হাটহাজারি মাদ্রাসাসহ কয়েকটি মাদ্রাসায় পুলিশ চেকপোস্ট বসানো হয়েছে।

আল্লামা শফীকে ঢাকা যেতে বাঁধা দেয়ার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নিরাপত্তার কারণে তাকে মাদ্রাসা থেকে বের হতে অনুরোধ করা হয়েছে। দেশের বিরাজমাণ পরিস্থিতিতে নতুন করে অস্থিতিশীলতা তৈরি হোক তা কারো কাম্য নয় বলে তিনি উল্লেখ করেন।

উল্লেখ্য, গত ফেব্র“য়ারিতে যুদ্ধাপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে গণজাগরণ আন্দোলন শুরু হলে ‘নাস্তিক ব্লগারদের’ শাস্তি দাবিতে মাঠে নামে হাটহাজারী মাদ্রাসার অধ্যক্ষ শাহ আহমদ শফী নেতৃত্বাধীন হেফাজত। গত ৫ মে তারা মতিঝিলে সমাবেশ ডেকে ঢাকার বিভিন্ন স্থানে তাণ্ডব চালায়, যাতে সংঘাতে নিহত হন বেশ কয়েকজন। হেফাজতকর্মীরা শাপলা চত্বরে টানা অবস্থানের ঘোষণা দিলে রাতে সাঁড়াশি অভিযানে তাদের তুলে দেয়া হয়।
- See more at: http://www.fairnews24.com/details.php?id=16645#sthash.1PLqFxmp.dpuf
Reactions:

0 comments:

NetworkedBlogs

Popular Posts

Recent Posts

Text Widget

Blog Archive