Total Pageviews

Its Awesome!

Sunday, December 15, 2013

 1:19 PM         No comments

হোয়াটমোরের দিন শেষ! দীর্ঘ দিন ধরেই এমন গুঞ্জন পাকিস্তানের কোচের। তবে আগামী ফেব্রুয়ারীতেই হয়তো চুড়ান্তভাবে ইতি টানতে যাচ্ছেন পাকিস্তানের সঙ্গে ডেভ হোয়াটমোরের সম্পর্ক। তার জায়গায় আবারও পাকিস্তানের কোচ হতে পারেন ওয়াকার ইউনুস।
এই খবর শুনে ক্ষেপেছেন পাকিস্তানের সাবেক ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতার। তিনি সরাসরি মন্তব্য করেছেন, ‘ওয়াকারের ফের কোচ হওয়া নিয়ে আমার কোনও সমর্থন নেই। ও ভালো অধিনায়ক ছিল না। ভালো কোচও ছিল না। তাই ও আবার পাকিস্তান দলের দায়িত্ব নিলে সেটা ভালো হবে না।’
শোয়েব আসলে ওয়াকারের ওপর ব্যাপকভাবে চড়াও হন ২০১১ সালের পর থেকে। সেবার বিশ্বকাপ দলে পাকিস্তানের কোচ ছিলেন ওয়াকার। আর শোয়েব ছিলেন দলে। কিন্তু মোহালিতে ভারতের বিপক্ষে সেমিফাইনালে ‘রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস’ শোয়েবকে দল থেকে বাদ দিয়ে দেন ওয়াকার ইউনুস। আর সেটাই তাঁর খেলোয়াড়ি জীবনে ইতি টানার প্রধান কারণ হিসেবে মন্তব্য করেছেন শোয়েব।
এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ভারতের বিপক্ষে বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল। ভারতের বিপক্ষে খেলার জন্য ব্যাপক উৎসাহ নিয়ে অপেক্ষায় আছি। কারণ এ ধরণের ম্যাচ তো যে কোনও ক্রিকেটারের জীবনেই অন্যতম সেরা অভিজ্ঞতা। কিন্তু হঠাৎ করেই শুনলাম ম্যানেজার ইন্তিখাব আলম ও কোচ ওয়াকার ইউনুস জানিয়েছেন, আমি ফিট নই। তাই আমি খেলতে পারবো না। শোনার পর আমার মনে হয়েছিল ওদের আমি খুন করে ফেলব। হয়তো সৃষ্টিকর্তাই চাননি। তাই আমি এমন ঘটনা ঘটাইনি।’
এমন ঘটনার পর পুরো পাকিস্তান শিবিরেই এক আতংক ছড়িয়ে পড়েছিল। শোয়েব প্রকাশ্যেই কোচ-ম্যানেজারের কাছে তাঁকে বসানোর কারণ জানতে চেয়ে চেঁচামেচি জুড়ে দিয়েছিলেন। সেই ঘটনা টেনেই সম্প্রতি পাক টিভিতে শোয়েব বলেন, ‘আমি খেলার মতো ফিট থাকা সত্ত্বেও ওরা আমাকে বাদ দিয়েছিল। এবং দু'জনেই বোঝাতে পারেনি ঠিক কি ধরণের ফিটনেস তারা চেয়েছিল। আমি নিশ্চিত, ভারতের বিপক্ষে সেমিফাইনালে খেললে ১০ ওভার বল করলে অন্য বোলারদের থেকে অনেক ভালোই করতাম। সত্যি বলতে কি ওই ম্যাচে খেলতে না পারার পর আমি ভেঙে পড়েছিলাম।’ এ বিষয়ে শোয়েব আকতার আরও বলেন, ‘অধিনায়ক শাহিদ আফ্রিদি আমাকে খেলাতে চেয়েছিল। ও আমার পাশে ছিল। কিন্তু ওর কথাকেও গুরুত্ব দেয়নি ওয়াকার। তাই এখন আবার ও (ওয়াকার) দায়িত্বে এলে পাকিস্তানের ভালো হবে না।’
এক সময়ের ব্যাটসম্যানদের আতংক শোয়েব আকতার এদিন মুখ খুলেছেন ভারতীয় দলের বর্তমান হাল নিয়েও। দক্ষিণ আফ্রিকায় দুটি এক দিনের ম্যাচে ধোনিবাহিনীর হার। শোয়েব মনে করছেন এটাই স্বাভাবিক ঘটনা, ‘দক্ষিণ আফ্রিকার মাঠে সম্পূর্ণ আলাদা উইকেট ও পবিবেশে সব দলের হালই প্রথমটা এমন হয়। তাই এক দিনের সিরিজ দিয়ে ধোনিদের বিচার করা ঠিক হবে না। তার মতে, ভারতের আসল লড়াই টেস্ট সিরিজে। ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকার দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথমটি শুরু হবে ১৮ ডিসেম্বর থেকে।
- See more at: http://www.priyo.com/2013/12/15/45468.html#sthash.CIgKjnOC.dpuf
Reactions:

0 comments:

NetworkedBlogs

Popular Posts

Recent Posts

Text Widget

Blog Archive